in

‘ভুলের’ পুনরাবৃত্তি করতে চায়নি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র

‘ভুলের’ পুনরাবৃত্তি করতে চায়নি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। তাই তারা কাবুল বিমানবন্দরে তাদের হেলিকপ্টার এবং বিমানগুলোকে নিষ্ক্রিয় করে দিয়ে গিয়েছে আফগানভূম ছাড়ার আগে।
হামিদ কারজাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে তাদের ৭৩টি সেনা কপ্টার ও বিমানকে অকেজো করে দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন সেন্ট্রাল কম্যান্ড হেড জেনারেল কেনেথ ম্যাকেঞ্জি।
তার কথায়, ‘ওই বিমান এবং কপ্টারগুলো আর ওড়ার মতো অবস্থায় নেই। কোনোভাবেই সেগুলোকে ফের চালু করা যাবে না।’

আমেরিকার সেনাবাহিনী কাবুল বিমানবন্দর নিজেদের দখলে নিয়ে নাগরিকদের উদ্ধারকাজ চালাচ্ছিল।
কিন্তু তার মধ্যেই তালেবান হুঁশিয়ারি দেয়, ৩১ অগস্টের মধ্যেই উদ্ধারকাজের পাট চুকিয়ে আফগানিস্তান ছাড়তে হবে আমেরিকার বাহিনীকে। আমেরিকা সোমবার গভীর রাতেই কাবুল বিমানবন্দর ছাড়ে।

তালেবান যখন আফগানিস্তানের এক একটি অঞ্চল দখল করছিল, ওই সময় আফগান বাহিনীকে দেওয়া আমেরিকার অত্যাধুনিক অস্ত্র, সাঁজোয়া গাড়ি-সহ বিপুল অস্ত্রভাণ্ডার তালেবানের দখলে চলে যায়।

ওই ‘ভুলের’ পুনরাবৃত্তি যাতে না হয়, তাই এবার আমেরিকার সেনাবাহিনী পাকাপাকিভাবে আফগানিস্তান ছাড়ার আগে কাবুল বিমানবন্দরে ৭৩টি সেনা কপ্টার ও বিমান নিষ্ক্রিয় করে দেওয়া হয়েছে বলে দাবি করেছে। অবশ্য, তালেবানের দাবি, তারা ওই বিমান ও কপ্টার ব্যবহার করতে পারবে।

What do you think?

Written by Rabeya Shathy

Leave a Reply

Your email address will not be published.

পাইলট নওশাদের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক

দেশে ফিরছেন কাবুলে আটকেপড়া ১৫ বাংলাদেশি