in

মালয়েশিয়ায় নতুন করে কর্মী প্রেরণ: নতুন ইস্যুতে প্রস্তুতি

করোনাভাইরাসের পরিস্থিতিতে সারা বিশ্বে ব্যাপক অনিশ্চয়তা জীবন, জীবিকা ও রাষ্ট্রপরিচালনাসহ সব ক্ষেত্রে লক্ষ্যণীয়। এ অনিশ্চয়তায় সাথে মানবপাচার এবং জোর করে শ্রম আদায়ের প্রসঙ্গ যোগ হয়েছে।

এ অভিযোগে সম্প্রতি আমেরিকা, ইউরোপ ও ইউকে মালয়েশিয়া থেকে পণ্য আমদানিতে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়; বাংলাদেশের মতো যা শ্রম প্রেরণকারী দেশের জন্যও ভাবনার। বাংলাদেশি কর্মীদের নাম মানবপাচারের এবং জোর করে শ্রম আদায়ের বা আধুনিক দাসত্বের ভিকটিম ইস্যুতে এসেছে।

এ ইস্যুতে মালয়েশিয়া ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছে এবং উঠে এসেছে বাংলাদেশ পক্ষের বিষয়াদি।

বাংলাদেশ থেকে মানবপাচার করে মালয়েশিয়ায় আনা এবং জোর করে শ্রমে নিয়োজিত করার অভিযোগ যুক্তরাষ্ট্রের ও বিভিন্ন সংস্থার রিপোর্টে বরাবর উঠে এসেছে।

২০০৬-০৭ সালে মালয়েশিয়ায় অতিরিক্ত বাংলাদেশী কর্মী এনে কাজ, আশ্রয়, খাদ্য ও স্বাস্থ্য সুরক্ষাহীন অবস্থায় মানবিক বিপর্যয় হয়েছিল এবং এজন্য মালয়েশিয়াকে আন্তর্জাতিকভাবে প্রশ্নবিদ্ধ করা হয়েছে; ফলে মালয়েশিয়া বাংলাদেশ থেকে লোক নিয়োগ বন্ধ করে।

What do you think?

Written by Rabeya Shathy

Leave a Reply

Your email address will not be published.

কাতারের সাথে ভারতীয় তিন শহরের ফ্লাইট শুরু

ভ্যাকসিন নেয়া বাধ্যতামূলক করেছে ইউনাইটেড এয়ারলাইনস