in

যে কারণে বিমানে হাফপ্যান্ট না পরার পরামর্শ দিলেন বিমানকর্মী

করোনাভাইরাস মহামারির কারণে এখন বিমান ভ্রমণের মানতে হয় নানাবিধ নিময়কানুন। সিটবেল্ট বাঁধা, ফোন ফ্লাইট মোডে আনার মতো প্রচলিত নিয়ম ছাড়াও সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখা আর সব সময় মাস্ক পরার মতো নিয়মগুলো মানতে হয় যাত্রীদের।

তবে সম্প্রতি এই নয়মের তালিকা আরো দীর্ঘায়িত করে দিয়েছেন অভিজ্ঞ বিমানকর্মী টমি সিমাটো।

তিনি কয়েকটি বিষয় টিকটকে এক ভিডিওতে তুলে এনেছেন। করোনাকালে যাত্রাপথে যাত্রীদের এসব থেকে বিরত থাকার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি। পাশাপাশি এসব না করার যৌক্তিক কারণও বলেছেন টমি।

টমির তালিকায় বিমান যাত্রীদের জন্য হাফপ্যান্ট না পরার পরামর্শ প্রথমেই স্থান পেয়েছে। এর পেছনের কারণ হিসেবে টমি বলেছেন, বিমানের আসন নানা ধরনের যাত্রীর সংস্পর্শে আসে। কিন্তু সব সময় তা পুরোপুরি জীবাণুমুক্ত করা সম্ভব হয় না।
তাই হাফপ্যান্ট পরলে এসব জীবণু শরীরে লাগার আশঙ্কা থাকে।

যাত্রীদের বিমানে যাত্রাকালে না ঘুমানোরও পরামর্শ দিয়েছেন টমি।কারণ ঘুমিয়ে পড়ার কারণে অনেকে মাথা জানলায় কিংবা সিটে এলিয়ে দেন।
এর করে আশঙ্কা থাকে জীবাণুর সংস্পর্শে আসার।

বিমানের টয়লেটে গিয়ে খালি হাতে ফ্ল্যাশ স্পর্শ না করার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি। এক্ষেত্রে হাতে টয়লেট টিস্যু পেঁচিয়ে ফ্ল্যাশ করার পরামর্শ দিয়েছেন টমি।

What do you think?

Written by Rabeya Shathy

Leave a Reply

Your email address will not be published.

ভারতের সব আন্তর্জাতিক ফ্লাইট বাতিলের মেয়াদ বাড়লো ৩১ আগস্ট পর্যন্ত

ওমরাহ করতে গেলে মানতে হবে যেসব শর্ত

প্রায় দেড় বছর পর ওমরাহ করার সুযোগ বাংলাদেশিদের